ঢাকাশনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিশ্ব ইজতেমায় আরও ৩ মুসল্লির মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক | সিটিজি পোস্ট
ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৪ ২:১৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গাজীপুরের টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমায় আরও তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় ইজতেমার মিডিয়া বিষয়ক সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে ইজতেমায় আসা মোট ১০ মুসল্লি মারা গেছেন। এর মধ্যে সাত জন ইজতেমা মাঠে ও তিন জন আসার পথে মারা যান।

বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিন চলছে আজ। ইজতেমায় আসা মুসল্লিদের আল্লাহু আল্লাহু ধ্বনিতে টঙ্গী এখন ধর্ম নগরে পরিণত হয়েছে। দ্বিতীয় দিনের বয়ান চলছে। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বয়ান শুনছেন ইজতেমায় আগতরা।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন- শেরপুর জেলা সদরের জুগনিবাগ গ্রামের মৃত শমসের আলীর ছেলে নওশের আলী (৬৫), ভোলার পরাগগঞ্জ উপজেলার সামানদার গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে আব্দুল কাদের (৫৫) ও নেত্রকোনা সদরের কালিয়াঝুড়ি গ্রামের হোসেন আহম্মদের ছেলে স্বাধীন (৪৫)।

নেত্রকোনা সদর উপজেলার কুমারী বাজার গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে আবদুস সাত্তার (৭০), একই জেলার বুড়িঝুড়ি গ্রামের স্বল্পদুগিয়া গ্রামের আব্দুস ছোবাহানের ছেলে এখলাস মিয়া (৬৮), ভোলা জেলার ভোল্লা গ্রামের নজির আহমেদের ছেলে শাহ আলম (৬০), জামালপুর জেলার তুলশীপুর এলাকার পাকুল্লা গ্রামের হযরত আলীর ছেলে মতিউর রহমান (৬০)।

এ ছাড়া ময়দানে আসার সময় মারা যাওয়া তিন জন হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার ধামাউরা গ্রামের ইউনুছ মিয়া (৬০), চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার চৌহদ্দীটোলা গ্রামের জামান মিয়া (৪০) ও ইজতেমায় আসার পথে বাসচাপায় এএসআই হাসান উজ্জামান (৩০)।

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনের শুরুতে বাদ ফজর মুসল্লিদের উদ্দেশে বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমান। তার বয়ান বাংলায় তর্জমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন। বাদ জোহর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরা। বাদ আসর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা জুহাইরুল হাসান। বাদ মাগরিব বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা ইব্রাহিম দেওলা।

এদিকে, বিশ্ব ইজতেমার অন্যতম আকর্ষণ যৌতুকবিহীন বিয়ে আজ বাদ আসর ইজতেমার বয়ান মঞ্চের পাশেই হবে। যৌতুকবিহীন বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমার মিডিয়া সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান। কনের সম্মতিতে ও তার অনুপস্থিতিতে বর এবং কনে পক্ষের লোকজনের উপস্থিতিতে হবে এই বিয়ে।

অভিভাবকরা দম্পতিদের নাম তালিকাভুক্ত করান। বিয়ের পর বয়ান মঞ্চ থেকেই মোনাজাতের মাধ্যমে নব দম্পতিদের সুখ-সমৃদ্ধিময় জীবন কামনা করা হবে। বিয়েতে মোহরানা ধার্য করা হয় মোহর ফাতেমীর নিয়মানুযায়ী। এ নিয়ম অনুযায়ী মোহরানার পরিমাণ ধরা হয় দেড়শ তোলা রুপা বা তার সমমূল্য অর্থ। এবার শতাধিক জোড়া বিয়ে সম্পাদন হবে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের এই ঢল থাকবে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামীকাল সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে আখেরি মোনাজাত হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।