ঢাকাসোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

৫০ টাকার নিচে সবজি নেই

স্টাফ রিপোর্টার | সিটিজি পোস্ট
অক্টোবর ২৮, ২০২২ ১২:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পেঁপে ছাড়া বাজারে অন্য প্রায় সব সবজিরই কেজি এখন ৫০ টাকার ওপরে। শীত আসার আগ পর্যন্ত এ দাম এমন থাকতে পারে বলে মনে করছেন বিক্রেতারা।  

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাড়তি দামে সবজি কিনে ক্ষুব্ধ ক্রেতারা। আর বিক্রেতারা বলছেন,পাইকারি বাজারে বেশি দাম যাচ্ছে, যার প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। দাম কমতে শীত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে- লাউ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়, বাঁধা কপি, ফুলকপি (ছোট) ৫০ টাকা পিস, টমেটো ১৪০ টাকা কেজি, কাঁচা কলা প্রতি হালি ৪০ থেকে ৫০ টাকা, শিম প্রতি কেজি ১০০ টাকা, বরবটি প্রতি কেজি ৮০ টাকা, কাঁচা মরিচ প্রতি কেজি ৮০ থেকে ১০০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া কেজি ৫০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, বেগুনের কেজি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, করোলা ৮০ টাকা কেজি, ঢেড়স প্রতি কেজি ৭০ টাকা, শসা ১০০ টাকা, ঝিঙ্গার প্রতি কেজি ৬০ টাকা। ৫০ টাকার নিচে পাওয়া গেলে একমাত্র পেঁপেই। পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে। মহাখালী বাজারে সাপ্তাহিক বাজার করতে এসেছিলেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী আনোয়ার হোসেন। বিক্রেতার সাথে সবজির দামাদামি করার সময় তার চোখে-মুখে এক ধরনের অসহায়ত্ব ফুটে উঠছিল। কারণ বাজারের এই ঊর্ধ্বগতির সাথে তিনি পেরে উঠছেন না।

কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই বাজারে কম টাকার মধ্যে কিছুই কেনা যায় না। এমন কোনো জিনিস নেই বাজারে যার দাম বাড়তি না। এই পরিস্থিতিতে জীবনযাত্রার ব্যয় ভার বহন করে টিকে থাকাই কঠিন। বাজারে ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। যেটার দাম করি সেটাই ৫০ থেকে ৮০ টাকা। এছাড়া শিম, শসা তো ১০০ আর টমেটো ১৪০ টাকা। বাজারে গরিবের সবজি বলতে শুধু পেঁপে আছে, যার দাম ৩০/৪০ টাকা। তাহলে বলেন আমরা খাবো কী?

সবজি বিক্রেতা আফসার আলী বলছেন, আসলেই বাজার বাড়তি যাচ্ছে।  পাইকারি বাজারেও প্রতিটি জিনিস আগের চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। এরপর আমাদের তা পরিবহনে করে এনে শ্রমিক দিয়ে নামাতে হয়। ফলে এর দাম আরও বেশি পড়ে যায়, এছাড়া পাইকারি বাজার, এই বাজার সব মিলিয়ে একটা লাইন ফি দিতে হয়। সব মিলিয়ে ক্রেতা পর্যায়ে আসতে একটা পণ্যের দাম বেড়ে যায়। মৌসুম শেষের দিকে তাই বর্তমান বাজার একটু বাড়তি যাচ্ছে।  রাজধানীর মালিবাগ এলাকার কাঁচাবাজারের সবজি বিক্রেতা মোজাম্মেল হক বলেন, আগের ফলনের বেশিরভাগ ফসলের শেষ চালানের মাল এগুলো। শীত আসলে সব নতুন সবজি উঠবে তখন দাম কমে আসবে। তাই সবজির দাম আসতে শীত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। নতুন সবজি আসার পর বাজার কমতে ২/৩ সপ্তাহ সময় লেগে যেতে পারে।