ঢাকাশনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঢাকায় রূপচর্চা সেবার কথা বলে বাসায় ডেকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

নিউজ ডেস্ক | সিটিজি পোস্ট
অক্টোবর ১২, ২০২২ ১১:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রাজধানীর শুক্রাবাদের একটি বাসায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে এক পারলার কর্মী দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বাসায় রূপচর্চা সেবা নেওয়ার কথা বলে সাভার থেকে ওই নারী পারলার কর্মীকে শুক্রাবাদের বাসায় ডাকা হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, বুধবার বিকেলে ওই পারলার কর্মীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান–স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। তিনি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ধর্ষণের শিকার নারী সাভারে থাকেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক তরুণী তাঁকে ফোন করে কাজ করাবেন বলে ধানমন্ডি ২৮ নম্বরে আসতে বলেন। সে অনুযায়ী পারলার কর্মী ধানমন্ডি ২৮ নম্বরে যান। সেখান থেকে ওই তরুণী পারলার কর্মী নারীকে শুক্রাবাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালের পাশের গলির একটি বাড়ির দোতলার বাসায় নিয়ে যান।

ওসি বলেন, ওই বাসায় থাকা তিন তরুণ প্রথমে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে পারলার কর্মীকে মারধর করেন। পরে তাঁরা ওই নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন। এতে সহায়তা করেন ডেকে আনা তরুণী। পরে রাতে ওই নারীকে রাস্তায় ছেড়ে দেওয়া হয়। তিনি সাভারে অবস্থানরত তাঁর স্বামীকে খবর দিলে তিনি শুক্রাবাদে আসেন।

পারলার কর্মী নারীর স্বামী বুধবার বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর স্ত্রী পারলারে কাজ শিখেছেন। তিনি বাসায় গিয়ে রূপচর্চা সেবা দেন—অনলাইনে এমন একটি বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন।

ওসি ইকরাম বলেন, তারা প্রথমে ঘটনাস্থল খুঁজে না পেয়ে ওসিসি থেকে বুধবার বিকেলে ঘটনার শিকার ওই পারলার কর্মীকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। আসামিদের শনাক্ত করা হয়েছে। ঘটনাস্থল শেরেবাংলা নগর থানা এলাকায়। ওই থানায় মামলা হলে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে।

বুধবার রাতে ঘটনা সম্পর্কে জানতে শেরেবাংলা নগর থানার ওসি উৎপল বড়ুয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথম আলোকে বলেন, থানায় মামলা হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আসামিদের শনাক্ত করা হয়েছে। এখন তাঁদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হবে।