ঢাকাসোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

‘রণবীরের জায়গায় মেয়েরা নগ্ন হলে ছেড়ে দিতেন?’, বিতর্কের আগুন জ্বাললেন মিমি

নিউজ ডেস্ক | সিটিজি পোস্ট
জুলাই ২২, ২০২২ ৭:৫৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রণবীর সিং-কে নিয়ে তুমুল চর্চা নেটপাড়ায়। ক্যামেরার সামনে নগ্ন হওয়া চারচিখানি কথা নয়! সে পুরুষ হোক কিংবা মহিলা। ‘বুকের পাটা লাগে বস..!’, মন্তব্য অনুরাগীদের।

মিলিন্দ সোমান ছাড়া বলিপাড়ার বর্তমান প্রজন্মের কেউ এমন দুঃসাহস দেখাননি! কিন্তু করে দেখালেন ‘গাল্লিবয়’। সপাটে বললেন, “নগ্নতা আহামরি কিছু তো নয়।” অভিনেতার এমন দুঃসাহসিক কর্মকাণ্ড দেখে এবার বাংলা সিনে ইন্ডাস্ট্রির তারকা মিমি চক্রবর্তীও মুখ খুললেন।

রণবীরের নুড ছবি দেখিয়ে মিমির প্রশ্ন, “মেয়েরা এরকম ফটোশুট করলে কি ছেড়ে কথা বলতেন?” একেবারেই উড়িয়ে মতো প্রশ্ন নয়। একবিংশ শতকেও মেয়েরা কি পরছেন, না পরছেন সমাজের আতসকাচ সবসময়ে একেবারে তৈরি-ই থাকে। কতটা ঝুলের পোশাক পরবেন, স্তন-বিভাজিকা দেখা গেল কিনা, তা নিয়ে মতামতের অন্ত নেই। নগ্ন ফটোশুট হলে তো কথাই নেই, বিচারসভা বসিয়ে দেন নেটদুনিয়ার নীতিপুলিশরা।

তবে সেই সমাজেই যদি একজন পুরুষ নগ্ন হন ক্যামেরার সামনে, সেটা নিয়ে হইহই পড়ে যায়। এমনকী, তারিফও করা হয়! তবে নারীরা কী দোষ করলেন? সেই জায়গা থেকেই মিমি প্রশ্ন ছুঁড়েছেন, “রণবীর সিংয়ের ফটো নিয়ে তোলপাড় নেটপাড়া। একেকটা কমেন্টে যেন আগুন ঝরে পড়েছে। তাই ভাবছি, একজন মহিলা এহেন নগ্ন ফটোশুট করলেও কি তাঁর সাহসের এমনভাবেই প্রশংসা করতেন সবাই, নাকি তাঁর বাড়ি জ্বালিয়ে দিতেন? মোর্চা বের করে খুনের হুমকি দেওয়া কিংবা স্লাট শেমিং করা কিছুই কি বাদ যেত?”

রণবীর নগ্ন ফটোশুট প্রসঙ্গে তারকা সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর এমন মন্তব্য অমূলক নয়। অভিনেত্রী এও প্রশ্ন করেন যে, “আমরা তো বরাবর লিঙ্গসাম্যের কথা বলে আসছি, এই বেলায় সেটার কি হল। আপনারা জানেন নিশ্চয় যে, আপনাদের এই ধ্যানধারণাই সমাজকে বদলে দিতে পারে কিংবা ধ্বংসও করে দিতে পারে। তাই আমি বলব, নগ্নতা নিয়ে এমন ছুঁৎমার্গ দূর করে মনটাকে আরও বড় করুন।”

তবে রণবীরের এমন হট ফটোশুটের প্রশংসাও করতে ভোলেনন না মিমি। বলেন, “এমন শরীর অনেক খাটুনি, ত্যাগ স্বীকারের পর পাওয়া যায়। নুন, চিনি, কার্বস কিছুই মুখে তোলা যায় না।” দীপিকা-পতির নগ্ন ফটো দেখিয়ে টলিপাড়ার নায়িকার এমন মন্তব্যই এখন শোরগোল ফেলে দিয়েছে নেটপাড়ায়।